চুয়েট ভর্তি রেজাল্ট 2020 -21, চুয়েটে শিক্ষার্থীদের ভর্তির যোগ্যতা

বাংলাদেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হল চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।( চুয়েট). এর আন্তর্জাতিক 1761 । এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট বিভাগ সংখ্যা 15 টি এবং সর্বমোট আসন সংখ্যা 890টি। এটি বাংলাদেশের চট্টগ্রাম ক্যাপিটাল রোডে অবস্থিত। চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এরিয়া 171 একর। সুতরাং, চুয়েট সম্পর্কে আলোচনা করা হলো:

চুয়েটে শিক্ষার্থীদের ভর্তির যোগ্যতা:

চুয়েট বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদনকারি শিক্ষার্থীদের 2018 সালে মাধ্যমিক পরীক্ষায় জিপিএ কমপক্ষে 4.00 থাকতে হবে। এবং প্রার্থীকে 2020 সালের এইচএসসি পরীক্ষায় গণিত, পদার্থবিজ্ঞান, ইংরেজি এবং রসায়ন এই চারটি বিষয়ে মোট জিপিএ 17.5 পেতে হবে। এছাড়া উল্লেখিত বিষয় সমূহের মধ্যে গণিত পদার্থবিজ্ঞান রসায়ন পৃথকভাবে থাকতে হবে। প্রতিটি বিষয়ে কমপক্ষে জিপিএ 4.00 পেয়ে পাশ করতে হবে। এবং ইংরেজিতে কমপক্ষে 3. 50 থাকতে হবে ।

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগ ও আসন সংখ্যা:

বৈদ্যুতিক এন্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং।আসনসংখ্যা 180 টি।
সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং। আসন সংখ্যা 130 টি।
কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং। আসন সংখ্যা 130 টি।
মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং। আসনসংখ্যা 180 টি।
আর্কিটেকচার ইঞ্জিনিয়ারিং। আসন সংখ্যা 30 টি।
বায়ো মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং। আসন সংখ্যা 30 টি।
ইলেকট্রনিক্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং। সর্বমোট আসন সংখ্যা 60টি।
মেকানিকস অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং।
আসন সংখ্যা 30 টি।
পেট্রোলিয়াম এন্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং। সর্বমোট আসন সংখ্যা 30 টি।
ম্যাটেরিয়াল সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং।
সর্বমোট আসন সংখ্যা 30 টি।
ওয়েটার রিসোর্সেস ইঞ্জিনিয়ারিং।
সর্বমোট আসন সংখ্যা 30 টি।
আরবার এন্ড রিজিওনাল ইঞ্জিনিয়ারিং। সর্বমোট আসন সংখ্যা 30 টি।
সুতরাং, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বমোট আসন সংখ্যা 890 টি।

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এর ভর্তি পরীক্ষার মানবন্টন:

সর্বমোট 2 ঘন্টা 30 মিনিট পরীক্ষা হবে। মোট 500 নম্বরের পরীক্ষা হবে। পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সাধারণত বহুনিবাচনি পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে। এতে পদার্থবিজ্ঞানে 150, রসায়নে 150, গণিতে 150 এবং ইংরেজিতে 50 নম্বর থাকবে। প্রত্যেকটি বিষয় থেকে 25 টি প্রশ্ন থাকবে। এবং প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর এই দিতে হবে।

অতএব, চুয়েট প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের একটি স্বপ্নের স্থান। শিক্ষার্থীদের ব্যাপক চাহিদা থাকা সত্বেও এখানে সিট সংখ্যা খুবই সীমিত। এজন্য প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে খুব ভালোভাবে পড়াশোনা করে চুয়েটের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। তাহলে সফলতা অর্জন করা সম্ভব।

Exit mobile version